DownTown CPDL – Secured Community Living

কর্ণফুলী নদী পূর্ব্বে আছে এক পূরী।
রোসাংগ নগর নাম স্বর্গ অবতারি। 

সেই কর্ণফুলীর তীরে, স্বর্গ অবতারি রোসাংগ নগরে গড়ে উঠেছে ডাউনটাউন সিপিডিএল, অনন্য এক পূরী, যেখানে বাতাস খেলা করে সমুদ্রের নোনা মদিরতায়, শুদ্ধ, প্রাণ খোলা অপার্থিব নান্দনিকতায়। সকলের ঐকান্তিক প্রয়াশে ধীরে ধীরে পূর্ণতা পাচ্ছে এই সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং

পাশ্চাত্যের ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রামের আদি ও বনেদী এলাকা পাথরঘাটা ও ফিরিঙ্গীবাজারে সিপিডিএল এর এই আবাসন পরিকল্পনা আজ প্রাণের অনুরণনে মুখরিত হয়ে উঠছে।

ক্রমহ্রাসমান ভূমি ও আকাশমুখী এ নগর জীবন মূলতঃ চার দেয়ালে বদ্ধ। স্থানাভাবে নাগরিক শিশুরা যখন বেড়ে উঠছে নিয়ন্ত্রিত ও সংকুচিত জীবনাচারে, সিপিডিএল সে সময়ে সংযোজন করেছে ভিন্নমাত্রা, নানা সীমাবদ্ধতা থাকা সত্তেও উদ্যোগী হয়েছে গ্রাহকদের জন্য নিরাপদ ও মুক্ত জীবন নিশ্চিত করার প্রয়াশে।

ডাউনটাউন সিপিডিএল এরকমই এক উদ্যোগের অনন্য গল্প হয়ে থাকবে অনাদিকাল।

ডাউনটাউন সিপিডিএল শুধুমাত্র একটি স্থাপনা নয়, বর্গফুটে সীমাবদ্ধ চার দেয়ালে ঘেরা কতগুলো ফ্ল্যাট বা বিচ্ছিন্ন কতগুলো পরিবারের আবাসনও নয়, এটি একটি স্বপ্নের নাম, একটি মানবিক আবেগের নাম, শতপ্রাণের একতাবদ্ধ একটি বসতি। যাকে সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে, সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং নামে।

 

কি এই সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং?

একটি অনন্য কনসেপ্ট যা শুধুমাত্র প্রকল্পটির অবকাঠামোতে সীমাবদ্ধ নয়, একই সাথে একটি জীবনবোধ, সামাজিক যুথবদ্ধতা। সন্নিবেশিত সকল সেবা সুযোগ সমূহকে যথার্থভাবে ব্যবহার করে,পারস্পরিক সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির বন্ধনে জীবনে একটি সামাজিক স্পন্দন সৃষ্টি করাই সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং এর মূলমন্ত্র।

 

একনজরে ডাউনটাউন সিপিডিএল

  • সিসিটিভি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রিত সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা
  • ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট
  • অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থাপনা
  • জেনারেটর
  • সাব-স্টেশন
  • কমিউনিটি অফিস
  • প্রেয়ারস্পেস
  • ছাদসমূহে পর্যাপ্ত কাপড় শুকানোর ব্যবস্থা
  • টয়লেট সুবিধাযুক্ত ড্রাইভারদের পর্যাপ্ত বিশ্রামাগার
  • গার্ড বিশ্রামাগার
  • কার ওয়াশ

 

কেন এই সিকিউরড কমিউনিটি লিভিং?

একই সাথে ভিন্ন ভিন্ন সামাজিক অবস্থান ও প্রতিবেশের অনেকগুলো পরিবার যখন এখানে জীবনের ঐকতান সৃষ্টি করে একটি অভিন্ন পরিবার সৃষ্টি করবে, সেই বন্ধনই হবে এই সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং এর মূল চালিকা শক্তি।

চিরায়ত পারিবারিক ঐতিহ্য, পারস্পরিক সহাবস্থান, সামাজিক নিরাপত্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে কাস্রে রমিজ, কাস্রে জুপিটার, কাস্রে মমতাজ নামে তিনটি নান্দনিক ও সুপরিকল্পিত টাওয়ারের সম্মিলনে গড়ে উঠেছে অনবদ্য এই সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং, ডাউনটাউন সিপিডিএল।

এই কমিউনিটি সৃষ্টি’র মূল কারন এখানে এমন একটি বন্ধন সৃষ্টি করা যাতে করে এর প্রতিজন সদস্য,তিনি কাস্রে রমিজ বা কাস্রে জুপিটার বা কাস্রে মমতাজ যে টাওয়ারের যেকোন ফ্লোরের বাসিন্দাই হোন না কেন, তার নিকট প্রত্যাশা থাকবে তিনি যেন, অনেক পরিকল্পনা, অনেক মেধা ও প্রচেষ্টা’র বিনিময়ে সৃষ্ট প্রতিটি সেবাসুযোগের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে নিম্নোক্ত বিষয়গুলোর ব্যাপারে আন্তরিক হবেনঃ

  • সামাজিক নিয়ন্ত্রণ
  • পারস্পরিক সহযোগিতা
  • আন্তরিকতার বন্ধন
  • সামাজিক পরিমিতি
  • সেবাসুযোগ সমূহ ব্যবহারে প্রয়োজনীয় অংশগ্রহণমূলক নীতিমালা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন।

 

কিভাবে চলবে এই সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং?

আর.সি. চার্চ রোড এবং বংশাল রোডে পৃথক দুটি প্রবেশ ও বহির্গমন পথ যা নিয়ন্ত্রিত হবে কৌশলগত ভাবে অবস্থিত দুটি গার্ডপোষ্ট এর মাধ্যমে। প্রতিটি প্রকল্পে দুটি করে মোট ছয়টি লিফট, যথার্থ অভ্যর্থনা ব্যবস্থা সহজ ও নিরাপদ গমনাগমন নিশ্চিত করবে।

এই ডাউনটাউন সিপিডিএল – সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং এর মূল ভাবনা নিহিত আছে কমিউনিটি’র সবচেয়ে চমকপ্রদ এই বিষয়টিতেঃ

একটি কমিউনিটি’র প্রতিজন সদস্য একে অপর কে চিনবেন, জানবেন, কমিউনিটিতে বিদ্যমান প্রতিটি সুবিধা সুযোগ নিজেদের চাহিদা মাফিক সময় ও প্রয়োজন সাপেক্ষে ব্যবহার করবেন।

আর তা করতে যেয়ে তারা একটা যৌথ পরিচালনা পর্ষদের মাধ্যমে সিপিডিএল প্রদত্ত যৌথভাবে ব্যবহার্য সার্ভিস বা সেবাসমূহকে এমন ভাবে ব্যবস্থাপনা করবেন যাতে সকলের মাঝেই সমতা ও ঐক্যের অনুভূতি সৃষ্টি হয়।

এই বর্ধিত সেবা সুযোগ পরিকল্পনাসমূহ সৃষ্টি করার সময় একটা কমিউনিটি’র সম্ভাব্য প্রতিটি বয়স- সদস্যদের কথা বিবেচনায় নিয়েই কাজ করা হয়েছে।

  • বাচ্চাদের খেলার জায়গা

  • ওয়াকওয়ে/টেবিল টেনিস

শিশুরা প্রতিটি কমিউনিটি’র প্রাণের মতো। সুস্থ্য সুন্দর সমাজ গঠনে শিশুদের সুষম শারীরিক ও মানসিক গঠন অত্যাবশ্যকীয়। বর্তমান প্রেক্ষিতে এই সংক্রান্ত জনসুবিধা যেমনঃ উন্মুক্ত খেলার মাঠ,পার্ক ইত্যাদি স্থানাভাবে অপ্রতুল, যদিও বা নিরাপত্তা জনিত কারনে নিশ্চিত মনে শিশুদের সেসব স্থানে পাঠানো হয় না বললেই চলে। এই বাস্তবতায়, ডাউনটাউন সিপিডিএল এর কাস্রে জুপিটার টাওয়ারের দোতলায় অবস্থিত ‘ ঐকতান ‘  এ শিশুদের খেলার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এখানে চেষ্টা করা হয়েছে শিশু মনের জন্য একান্ত নিজস্ব একটি জগত সৃষ্টি করার।

মিনি বাস্কেটবল প্যাড

শিশুদের মতোই পরিবারের বয়স্কদের জন্যও খেলাধূলা করা শরীর ও মন উভয়ের জন্য অতীব গুরত্বপূর্ণ। নাগরিক জীবনের প্রাত্যহিক ব্যবস্থায় যা সচরাচর কোন পাবলিক মাঠ বা এরকম কোথাও যেয়ে করা হয়ে উঠে না। এরই প্রেক্ষিতে ডাউন টাউন সিপিডিএল এর কমিউনিটি লিভিং এর ঐকতানে রাখা হয়েছে ইনডোর গেমস ফ্যাসিলিটি স্পেস। অফিস বা কর্মস্থল থেকে ফিরে বা ছুটি’র দিনে কিছুটা সময় টেবিল টেনিস খেলা যেতে পারে এই ঐকতান এ ।

ঐকতানের অপর অংশ চৌরঙ্গীতে অবস্থিত কাস্রে জুপিটার ও কাস্রে মমতাজের অন্তবর্তী ওপেন-টু-স্কাই স্পেসটিতে। সেখানে বাস্কেটবল নিয়ে কয়েকজন মিলে কিছুটা ভালো সময় পার করা যাবে।

জিমনেশিয়াম

কিংবা সুস্থ্য দেহ, সুন্দর মন’ এই প্রতিপাদ্যকে উদ্দেশ্য ধরে কাস্রে মমতাজ টাওয়ারের দোতলাস্থ জিমনেশিয়াম প্রত্যয় এর ট্রেডমিল, ক্রস ট্রেইনার, বাইসাইকেল, বেঞ্চ বা ডাম্বেল শরীর ও মনটাকে প্রফুল্ল রাখতে পারে, সংযুক্ত ওপেন টেরেসে করা যেতে পারে স্কিপিং।

যেখানে এপার্টমেন্টের দেয়াল ঘেরা বন্দীত্ব সকলে মেনেই নিয়েছে, সেই সময়ে সিপিডিএল ভিন্নতা সৃষ্টি করে দেখিয়েছে, যাদের জন্য এই সুবিধা সৃষ্টি’র একান্ত প্রয়াশ, এখন সেই ফ্ল্যাট মালিকগণ এবং এই কমিউনিটি’র প্রতিজন সদস্যের দায়িত্ব হবে একে সঠিক ভাবে পরিচালনা করা, আরও বেশী সমৃদ্ধ করা।

সিপিডিএল এর এই উদ্যোগ ও আন্তরিকতা যদি এখানকার শিশুদের জীবনে প্রশান্তি— ও সুখ সৃষ্টি করতে পারে, সকল কষ্ট সার্থক বলে বিবেচিত হবে।

কমিউনিটি স্পেস

শিশু-কিশোরদের একসাথে বেড়ে উঠা, সকলের আন্তরিকতার বন্ধনে প্রাণোচ্ছল প্রজন্মের পদভারে যদি জমে উঠে ঐকতান বা চৌরঙ্গী, তবেই সিপিডিএল এর সকল প্রয়াস সাফল্য সুখ পাবে।

প্রতিটি কমিউনিটি লিভিং কনসেপ্ট এর অত্যাবশ্যকীয় অনুষঙ্গ একটি সম্মেলন কেন্দ্র। পৃথক প্রবেশপথ, সামনে সবুজ খোলা টেরেস সহ ডাউনটাউন সিপিডিএল এর কাস্রে রমিজ টাওয়ারের দোতলায় আয়োজিত সম্মেলন কেন্দ্রটি’র নামকরণ করা হয়েছে সম্প্রীতি। প্যান্ট্রি সুবিধাযুক্ত সম্প্রীতিতে এই সিকিউরড-কমিউনিটি-লিভিং এর সকল অধিবাসীদের জন্য ঘরোয়া পরিসরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানাদি আয়োজন করার জন্যই নির্মীত হয়েছে।

লাইব্রেরি লাউঞ্জ

প্রাথমিক অভ্যর্থনা ও পরিবারের সকলের জন্য বিশেষ করে অবসরপ্রাপ্ত বা বয়স্ক সদস্যদের কথা বিবেচনায় রেখে এই কমিউনিটিতে সিপিডিএল এর উপহার হিসেবে রাখা হয়েছে একটি সুসজ্জিত লাইব্রেরী লাউঞ্জ, পাঠ প্রবর্তনা।

একসাথে বসে কয়েকজন মিলে পত্রিকা, বই বা ম্যাগাজিন পড়ে ভালো একটি সময় কাটানোর মাধ্যম হোক এই পাঠ প্রবর্তনা।

একটি মানবিক জীবনবোধে পারিবারিক সংস্কৃতি শুদ্ধাচারে বই এর গুরত্ব অপরিসীম। সেই গুরুত্ব এই কমিউনিটি’র সকল সদস্য অনুধাবন করে এর যথার্থ ব্যবহার নিশ্চিত করবে এটাই প্রত্যাশিত।

মাঝখানের খোলা অঙ্গন

কাস্রে রমিজ ও কাস্রে জুপিটারের অন্তর্বর্তী খোলা জায়গাটি মধ্যস্থ একটি ব্রিজ দিয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে, যার নামকরণ করা হয়েছে মুক্তাঙ্গন। প্রসঙ্গত, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসে জুপিটার হাউজ এর রয়েছে এক অনন্য ভূমিকা।

  • কাস্রে জুপিটারের ছাদবাগান
  • কাস্রে মমতাজের ছাদবাগান
  • কাস্রে রমিজের ছাদবাগান

আধুনিক নাগরিক জীবন ঘরের চারদেয়ালে বন্দী একঘেয়ে জীবনেরই নাম, এই একঘেয়ে বন্দীদশা থেকে মুক্তির যৎসামান্য ব্যবস্থা করতেই ডাউনটাউন সিপিডিএলকে সাজানো হয়েছে বেশ কিছু অবসরকেন্দ্র দিয়ে। পরিকল্পিত বিন্যাসে সজ্জিত এই অবসর কেন্দ্রসমূহ প্রকল্পের গ্রাউন্ড লেভেলের অন্তবর্তী স্থান এবং কাস্রে রমিজের ছাদ – মধুমিতা, জুপিটারের ছাদ – চন্দ্রিমা এবং মমতাজের ছাদ নীলিমাতে অবস্থিত। পর্যাপ্ত গাছপালা দিয়ে ল্যান্ডস্কেপ করা এবং বসার জন্য দোলনাসহ অন্যান্য ব্যবস্থা যুক্ত হওয়ায় অবসরকেন্দ্র গুলোতে সময় কাটানো এখানকার অধিবাসীদের জন্য অবশ্যই অন্যতম আকর্ষন বিবেচিত হবে। এই কমিউনিটি’র অধিকতর স্বাচ্ছন্দ্য নিশ্চিত করতে ডাউনটাউন সিপিডিএল এ মিনি মল, লন্ড্রী, সেলুন ইত্যাদি প্রাত্যহিক চাহিদা পূরণে কিছু বাণিজ্যিক সুবিধাদিও সংযুক্ত করা হয়েছে।

ডাউনটাউন সিপিডিএল নির্মীত হয়েছে পরিবেশ ও প্রতিবেশগত নিরাপত্তায় সবুজায়নের পরিকল্পনায়। সিকিউরড-কিমিউনিটি-লিভিং এর এই আয়োজন, এই কমিউনিটি’র প্রতিজন সদস্যের জীবনের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে চাহিদা ও প্রতিশ্রতিরও অধিক সেবা নিয়ে সিপিডিএল এর এক অনন্য উদ্যোগ। এর যথার্থ ভবিষ্যত রক্ষণাবেক্ষণ অবশ্যই এর অধিবাসীদের নির্মল, প্রাঞ্জল ও স্বাস্থ্যকর জীবন নিশ্চিত করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *